fbpx

 আনিসুর রহমান অপুর কবিতা

অদূরে উপশমের আলো

দিনগুলি ঘুরে দাঁড়িয়েছে— এমনটি ভাবতে ভালোই লাগে,

কষ্টরা সদল খুঁটি গেড়ে ছিল আগে, থাকবে কি সেভাবেই

আজীবন? যেভাবে পাল্টায় নদী গতিপথ, সেভাবে জীবন

ম্লানমুখ মুছে হাঁটতে হাঁটতে পৌছে যেতো যদি, সুখি দাগে!

 

দুয়োরানীর সংসার, যদিও পেছনে ফেলে আসে কেউ-কেউ,

তবু তার রেশ বয়ে চলে রক্তের ভেতরে, রিক্ত-নিঃস্বজন!

বেঘাটের ভুল ভালোবাসা, মেলাতে ব্যাকুল সদা আনা-পাই;

সম্পর্কের সবুজাভা মুছে দেয়, স্বার্থমগ্ন সময়ের ঢেউ ।

 

বিষণ্ণ বেহালা বাজাবে কি সেই, একই টিউন দিনভর!

স্বয়ম্বর সভায় সকল নিয়ে রয়েছে যে, প্রিয় প্রতীক্ষায়—

চিবুকের তিল তার দেয়নি তোমায় কি, যথেষ্ট প্রণোদনা?

হাল ছেড়ো না, হে নাবিক, চেষ্টায় মেলে ঠিক, বিশ্বস্ত বন্দর!

 

অদূরে উপশমের আলো, দিনের সুবাস ছুঁয়ে যাচ্ছে চতুর্দিক,

থ্যাতলানো রাত থেকে মাথা তুলছে উদ্যমী গল্প, মানবিক!

 

দিগন্ত আরেক

ভাবি—দেখা হোক খুব–দুরন্ত-দুর্বার, চুরমার

করে সব, যেনতেন টিকে থাকা ঘরের কাঠামো

ভেঙে, ছুটে যাই—উড়ে যাই গাঙচিলের ডানায় ,

পাহাড় পালিয়ে নামা নদীর নির্জনে খুঁজে নিই

নিজস্ব আকাশ আর গাঢ় গভীর ইচ্ছের পাড়

ধরে সুর শিহরণ; ভ্রষ্ট নগরীর বাঁদরামো

দেখেছি তো ঢের, ডালপালা মেলে নানা বাহানায়

 

গেঁথেছি সম্পর্ক শেকড় ও পিছুটান, ভুল রাগে;

হারিয়ে ফেলেছি ছন্দ, নাতিশীতোষ্ণ সঞ্চয়;

ইমন কল্যাণ থেকে আশাবরী বিলয় অনেক–

অন্তর্জাল ছিঁড়ে সশরীরে, ধ্রুপদী সাঁতার দিই

যদি প্রিয় শিল্প সরোবরে; স্বপ্ন সমর্পণে জাগে

প্রাণ প্রাণে– রঙে রঙে ভিজিয়ে-ভাসিয়ে পরিচয়,

ভেঙেচুরে সব– বেছে নিই ফের– দিগন্ত আরেক!

 

তবুও ভালোবাসায় আস্থা আমাদের

তবুও ছাড়িনি আশা,

বিশ্বাসকে আজও সেভাবে ভাবি ভরসার ভূঁই!

বুকের জমিন যদিও এখনো অনাবৃষ্টির ভূ-ভাগ!

স্যাঁতসেঁতে বোধ আর ভ্যাপসা গন্ধের বিমর্ষতা ঢেলে গেছে কাছের মানুষ!

কথা রাখার মানুষ যেন আজ পৃথিবীর বিলুপ্ত প্রজাতি!

সুয়োরানীর ছলাকলায় অফুরান অন্ধকার—

তবুও ছাড়িনি হাল—যদিও ময়াল গিলে খেয়েছে স্বপ্নের মাঠ!

তবুও বিশ্বাসে বীজ রুই,

ফোটাই হরেক ফুলের আশ্বাস, শিউলি-বকুল-জুঁই—

 

কেউ মানুক বা না মানুক জল-সারে এখনো প্রত্যয়ী প্রেম!

এখনো শিয়রে পেতে পারো, পাতা মুড়ে রাখা

মৈত্রীয়ী-মীর্চার ন-হন্যতে কিংবা বেঙলি—লা-নুই !

চারপাশে নানা বিপর্যয়, কামাক্রান্ত কুকুরের ভাদ্রের বিভ্রান্তি—

বুকের ভেতর দানব শাসনে পিষ্ট বাবরি মসজিদের মতো ভাঙনের তছনছ!

তবুও ভালোবাসায় আস্থা আমাদের, জমাট শীতেও এই

তার মুখে খেলা করে বসন্তের অপেক্ষায় থাকা

কাঁচা-মিঠা রোদ্দুরের আশাবাদ—

নিচ্ছিদ্র অন্ধকারের ভেতর যেভাবে নিছক অভ্যাসে

প্রহরান্তে স্বপ্নকেই ছুঁই,

সেভাবে নিমিষে নিরাময়—দোর্দণ্ড প্রতাপে ওলোটপালোট

ঘটাতে পারিস ভালোবাসা, ভালোবাসা তুই!

 

আনিসুর রহমান অপু: মার্কিন মুল্লুক প্রবাসী কবি

আরো পড়ুন: রুশিয়া জামান রত্নার গল্প

error: Content is protected !!