fbpx

সর্বকনিষ্ঠ কাশ্মিরী লেখিকা আদিবা রিয়াজ: ১১ তেই বই লিখে চমক

‘মানুষের থেকে কাগজ অনেক সহনশীল’ — নাৎসি আমলে জার্মানিতে হলোকাস্টের শিকার  কিশোরী আনা ফ্রাঙ্কের ডায়েরিতে লেখা কথাগুলি বইয়ের প্রারম্ভিকায় উদ্ধৃত করে প্রকাশিত হল আদিবা রিয়াজের ১ম বই। বয়স ১১ বছর। সবে সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া। জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যের বই প্রকাশিত হয়েছে এমন কবি লেখকদের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ আদিবা রিয়াজ।

আদিবা ২০১৯ সালে কাশ্মির রাজ্যের অনন্তনাগ জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সৃজনশীল লেখালেখি প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ করে পুরস্কার অর্জন করেছিল।পুরস্কার পাবার পর থেকেই লেখালেখি চর্চার উৎসাহে নতুন মাত্রা যোগ হয়। এরপরই জম্মু কাশ্মির লাদাখে ৩৭০ ধারা রদ করাকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক পরিবেশ উত্তাল হয়ে ওঠে। জম্মু-কাশ্মিরে জারি করা হয় কারফিউ। করোনা মহামারীর জন্য লকডাউনও দিনে পরদিন বেড়ে চলছিল। কারফিউ আর লকডেউনের ছুটির ফাঁকে আদিবা রিয়াজের কলমের চর্চা চলে। সদ্য প্রকাশিত বইয়ের পুরোটাই লেখা হয় মাত্র এগারো দিনে। বইয়ের প্রারম্ভেই লিখে, ‘সবাই লেখক হতে পারে, কারণ কাগজে রক্ত ঝরানোটা সহজ’।

Adeeba Riaz, the youngest Kashmiri writer: made a surprise by writing a book at the age of 11 কাশ্মিরী কনিষ্ঠ লেখিকা আদিবা রিয়াজ
                                                 Photo: India Today

আদিবা রিয়াজ লিখিত আলোচিত এই বইয়ের নাম ‘জ়িল অব পেন’। বাংলা করল যা দাঁড়ায়, ‘কলমের উদ্দীপনা’। বইটিতে ৯৬ পাতা জুড়ে ৩৫টি অধ্যায়ে সাজানো আদিবার টুকরো-টুকরো মনের কথা, ৯টি কবিতা ও ১১টি অনুচ্ছেদ। প্রচ্ছদ সাদা-কালো; দিন-রাতের মতো বরাবর দু’ভাগে বিভক্ত করা। সাদাকালো ব্যাকগ্রাউন্ডে কালো ঝরা পালক থেকে ছিন্ন হয়ে উড়ে যাচ্ছে সাদা পাখিরা।

আদিবা রিযাজ বলছে, এ বার লেখালেখিতে আরও মন দিতে চায়। এমন লেখা আরো লিখতে চায়, যার মধ্যে পাঠক নিজেকে খুঁজে পেতে পারে।

সৌজন্যে: আনন্দবাজার পত্রিকা

আরো পড়ুন: পলিয়ার ওয়াহিদের কবিতা

 

error: Content is protected !!